ইউজার লগইন

এমন যদি হত

- সারাদিন আজ কি করলে?
; এই তো, ঘুম থেকে উঠে চা বানিয়ে বিস্কুট দিয়ে খেলাম। তার পর একটা রেসিপি লিখার চেষ্টা করলাম, জানো আজ গল্প ও রান্না’য় তেইশ লক্ষ হিট হয়ে গেল!
- আমরা বাসায় নেই এখন তো তোমাকে লেখায় আর কেহ বাধা দিচ্ছে না!
; না, এখন তোমরা না থাকলেও আর লিখতে পারি না, না লিখতে লিখতে অভ্যাস হয়ে গেছে, তার পর ফেসবুকে এতটা অসক্ত হয়ে পড়ছি যে, লেখার চেয়ে ফেসবুকে থাকতেই আনন্দ পাই। অন্যের লেখা পড়ি আর লাইক কমেন্ট করি! ওহ, আর ফেসবুকের ওয়ালে শুধু সেলফি দেখি!
- আজ নামাজ পড়োনি?
; হ্যাঁ, পড়েছি, সেই পুরানো সপ্তাহের মতই। বাসার কাছে মসজিদ, এই ঢাকা শহরে।
- দুপুরে খাবার খাও নাই?
; হ্যাঁ, নামাজ থেকে ফিরেই রান্না শুরু করলাম। এক চুলায় ভাত অন্য চুলায় রুই মাছ ঝোল করে রান্না। বড় ছেলের কথা মনে পড়াতে এবার রুই মাছ ভাজি করে রান্না করেছি। জানো এবার তোমার রসুন এবং আদা বাটায় নাম লিখে রাখাতে ভাল হয়েছে, খুঁজে পেতে সুবিধা হয়েছে! এক তরকারী এক ভাত, মোটামুটি তিনটের আগেই খেতে পেরেছি।
- এর পর?
; এর পর আবারো সেই পুরানো চেষ্টা! গল্প ও রান্না’য় আবারো রেসিপি পোষ্ট লিখার চেষ্টা। এবারের চেষ্টা সফল হয়েছি। একটা রেসিপি লিখতে পেরেছি, পুটি মাছের রান্না দেখিয়ে দিয়েছি!
- তারপর?
; ঘুমে আবারো চোখ বন্ধ হয়ে আসছিলো, ঘুমিয়ে গিয়েছিলাম। সেই কি কঠিন ঘুম, সন্ধ্যায় উঠে মোবাইলে দেখি ৪২টা মিস কল! হজ্জ অফিস থেকে একাই ২০টা কল! ভয়ে আঁতকে উঠেছিলাম! ফোন ব্যাক করে যা বুঝলাম, সেই কাজ আগামীকাল সকালে করে দিলেও চলবে! মানুষ যে কাজ কাল হলেও চলে, সেই কাজের জন্য আজ কেন হন্য হয়ে উঠে!
- বিকেলে কিছু খাওনি!
; না, রুই মাছ দিয়ে এত ভাত খেয়ে ছিলাম যে, ক্ষুধার ধারে কাছেও ছিলাম না! তবুও মন চাইলো, বাইরে বের হবার ইচ্ছা ছিল না, এদিকে মাথার চুল কাটানোর দরকার, এমন বন্ধের দিন আর কবে পাব!
- বের হও নাই!
; না, বের না হয়ে পারি নাই! তবে চুল কাটাতে পারি নাই, ইচ্ছা হয় নাই! আল-কাদেরীয়ার শাহী মোগলাই পরোটা আর চা খেয়ে ফিরে এসেছি!
- তুমি একা থাকতে পছন্দ করো, এটা আমরা জানি!
; আমি একা কই, সাথে মোবাইল, টিভি, কম্পিউটার আছে না!
- আমরা বাসায় না থাকলে তুমি টিভিতে উচ্চুস্বরে গান শুন, এই আভিযোগ পুরানো! পাশের বাসার ভাবীরা বলেন!
; হ্যাঁ, সন্ধ্যায় ফিরেই আজ টিভি দেখতে লেগেছিলাম। অনেক দিন পর, সোফায় সেই ভঙ্গি করে শুয়ে প্রায় ঘন্টা দুয়েক টিভি দেখেছি। আজ মীরাক্কেলের ৭৫তম শো ছিল! প্রক্তানদের নিয়ে করা এই হাসির আড্ডা এত জমজমাট ছিল যে, আমি একাই হেসেছি উচ্চুস্বরে!
- রাতে কি আর কিছু খাবে না!
; ওহ, বলতে ভুলে গেছি। মোগলাই খেয়ে বাজারে গিয়েছিলাম, দুই মুট কলমি শাক, কিছু কাঁচা মরিচ ও চারটা লেবু কিনে ফিরেছিলাম। অনেক দিন শাকভাজা খাই নাই, ইচ্ছে হচ্ছিলো!
- শাক পরিস্কার করে নিয়েছো তো?
; টিভি দেখার ফাঁকে ফাঁকে কাজটা করেছি, ড্রয়িং রুমের দুই বাতি জালিয়ে!
- তা হলে রাতেও খেয়েছো!
; দুই দিনের দুনিয়া। খাবার ছাড়া আর কি আছে এই জীবনে! কম তেলে ভাজি করে নিয়েছি, দুপুরের রুই মাছ এবং কিছু ভাত ছিলো সেটা গরম করে নিয়েছি! হয়ে যাবে।
- এখনো খাও নাই!
; না, সব সাজিয়ে বসতে গিয়েছিলাম। তোমার ফোন পেয়ে কথায় লেগে গেলাম! তোমাদের দিন কেমন কাটছে, বুলেট ব্যালট কি করছে! আজ কি কি রান্না হল?
- পরে বলবো! যাও, আগে খেয়ে নাও। খাবার গরম খাওয়া ভাল!

পোস্টটি ৭ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

টুটুল's picture


ওয়েলকাম ব্যাক Smile

ক্যামন আছেন?

সাহাদাত উদরাজী's picture


ধন্যবাদ টুটুল ভাই। আছি, এই তো! আমরা বন্ধুকে মনে পড়ে, আমরা বন্ধু থেকেই বাংলা টাইপ শিখতে পেরেছিলাম এবং সেই থেকেই লিখে যাচ্ছি।

হ্যাঁ, বলতে গেলে ৫ বছর পর ফিরে এলাম (ভুল হতে পারে), আমরা বন্ধুকে মনে পড়ে সব সময়েই। আপনারা আমাকে প্রায় ৪ বছর ব্যান করে রেখেছিলেন, কি জানি কোথায় কি কমেন্ট বা একটা কবিতা লেখার জন্য! যাই হোক এর পর বছরখানেক আগে মুক্তি পেয়েছিলাম! কিন্তু ভেবে ভেবে সময় কাটছিলো, কি লিখবো। তবে মাঝে মাঝে মনে পড়লে ঘুরে যেতাম। আমার সেই কবিতা(!) দেখে যেতাম!

গতকাল কি যেন ভেবে লিখে ফেললাম!

আপনারা সবাই ভাল আছেন নিশ্চয়। আনন্দে সময় কাটুক আপনাদের।
শুভেচ্ছা।

মীর's picture


ওয়েলকাম ব্যাক উদরাজী ভাই, ভাল লাগলো আপনাকে আবার এখানে দেখতে পেয়ে Smile

লেখা যথারীতি সুস্বাদু, পড়ে ক্ষিধে পেয়েছে ব্যাপক, তবে গল্পের মাজেজা বুঝি নাই Wink শিরোনামের মানে কি- এমনভাবে যদি প্রতিদিন বাসায় রান্না হতো? Tongue

যাহোক পুরানো কথা ভুলে সামনের দিকে তাকাই চলেন।

আর অনুগ্রহ করে ভোটকা ভোটকা লোকজন একে অপরকে কোলে নিয়ে বৃষ্টিতে ভিজতেসে টাইপ ছবি পোস্ট আর দিয়েন্না, আপনারে আমার প্লীজ লাগে Laughing out loud Laughing out loud Big smile

সাহাদাত উদরাজী's picture


ধন্যবাদ মীর ভাই।
আপনার স্মরণ শক্তিকে আমি শ্রদ্ধা জানিয়ে গেলাম, ঘটনা এখন আমার মনে পড়ছে! সেই ছবি গুলোর জন্যই আমাকে ব্যান করা হয়েছিল! অবশ্য পোষ্ট দেয়ার পর আমি অনেক কমেন্ট নিজেও দেখতে পারি নাই! হা হা হা। আমাকে এক তরফা দোষী বানিয়ে সাজা দেয়া হয়েছিল! যাই হোক, ব্যাপার না! এখন অনেক হয়েছে, বয়স হয়েছে! বন্ধুত্ব এগিয়ে চলুক! আর দিমু না!

আমি আমার লেখা থামাই নাই!

এই গল্পের মজেজা আপনি বুঝবেন না Smile , বিবাহিত পাঠক/পাঠিকাদের টার্গেট করেছি Tongue বিবাহ করছেন কি?

শুভেচ্ছা নিন।

মীর's picture


হাহাহহাহা, গল্প না বুঝলেও আপনের লেখা চাই। নিয়মিত লেখেন, আর সহজ টাইপ রেসিপি হলে তো কথাই নাই। ভাল থাকেন Smile

সাহাদাত উদরাজী's picture


যা জানতে চাইছিলাম, তা পাশ কেটে চলে গেলেন Laughing out loud !

মীর's picture


জ্বি জনাব। পাশ কেটে চলে গেছি। ভেবেছিলাম এতে আপনি বুঝতে পারবেন। আমি পাবলিক ফোরামে ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে আলাপ করতে পছন্দ করি না। একই সঙ্গে সবার সাথেও ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে আলাপ করতে পছন্দ করি না। তবে আপনার আগ্রহের প্রতি সম্মান জানিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছি, হ্যাঁ করেছি।

সাহাদাত উদরাজী's picture


সরি, মীর ভাই।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

সাহাদাত উদরাজী's picture

নিজের সম্পর্কে

নিজের সম্পর্কে নিজে কি লিখব! কি বলবো! গুনধর পত্নীই শুধু বলতে পারে তার স্বামী কি জিনিষ! তবে পত্নীরা যা বলে আমি মনে করি - স্বামীরা তার উল্টাই হয়! কনফিউশান! ----- আমি নিজেই!! ০১৯১১৩৮০৭২৮ udraji@gmail.com

বি দ্রঃ আমি এখন রেসিপি লেখা নিয়েই বেশী ব্যস্ত! হা হা হা। আমার রেসিপি গুলো দেখে যাবার আমন্ত্রন জানিয়ে গেলাম। https://udrajirannaghor.wordpress.com/

******************************************
ব্লগ হিট কাউন্টার


Relaxant pills