অনুসন্ধান

ইউজার লগইন

অনলাইনে

এখন জন সদস্য ও জন অতিথি অনলাইনে

অনলাইন সদস্য

যাপিত দহনের গল্প - ২

জীবনের অন্যতম অর্থ সম্পর্কে আমি কৌতূহলী বহুদিন ধরে। কি কারণে 'জীবন' তার সাড়ে তিন বিলিয়ন বছরের পথ পাড়ি দিয়ে আজকের অবস্থায় এসেছে? কিসের আশায়? মানুষও তো তিনশ হাজার বছরের ইতিহাস পেছনে ফেলে এসেছে। কোন উদ্দেশ্যে?

বংশবিস্তার জীবনের একটি অন্যতম উদ্দেশ্য- গবেষকদের কথা এটি। কিন্তু বংশবিস্তারের দ্বারাই বা কি এমন বিরাট কার্য সম্পাদিত হয়েছে? সাড়ে তিন বিলিয়ন বছর ধরে নানান প্রজাতি জীবনের জয়গান গাইছে। অদ্যবধি তাতে করে সাড়ে ছয় হাজারের মতো স্যাটেলাইট, হাতে গোণা কিছু মহাকাশযান ও মহাকাশচারী ছাড়া বলার মতো কিছু নেই। এইসবে বিজ্ঞানের যা উন্নতি হয়েছে তাতে আমাদের চলার পথে মসৃণতা এসেছে। কিন্তু সত্যিকারের লাভ কি কিছু হয়েছে?

যাপিত দহনের গল্প

অসম্ভব কথাটির সাথে দ্বিমত পোষণ করা একটি জীবন কাটানো কতটা সহজ? সেই কবে কোন ছেলেবেলায় বইয়ে পড়েছিলাম ফরাসী বীর নেপোলিয়নের কথা। বলে কিনা অসম্ভব নাকি শুধু বোকাদের শব্দকোষেই পাওয়া যায়। আচ্ছা, যদি বুকের ভেতর কষ্ট হয় তবে কি সেটা বোধ না করে থাকা সম্ভব? কিংবা যদি মনের সায় না মেলে তো সে কাজ আনন্দ নিয়ে করা?

ঘুমাও ঘুমাও ঘুমাও সখা ঘুমাও তুমি

গীতিকবিতা / ঘুমাও ঘুমাও ঘুমাও সখা ঘুমাও তুমি
আবুল হোসেন
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
২৬/০৯/২০২১

ঘুমাও ঘুমাও ঘুমাও সখা ঘুমাও তুমি আমি জেগে জেগে থাকি।
দেখব চাঁদ মুখ মিটাব মর্ম দুঃখ দেখে তব মদির আঁখি।

কতদিন পরে এলে সেকি মম আঁখি জলের মুল্য দিলে
তোমার বিরহে পথ পানে চেয়েছি কত যে আঁখি জলে ভেসেছি
শুধু আমি নই গো সখা মম বিরহে বিরহী হয়েছে
বাতাস,তরুলতা, পাখি।
ঘুমাও ঘুমাও ঘুমাও সখা ঘুমাও তুমি আমি জেগে জেগে থাকি।

আজ আকাশে পূর্নিমা না অমাবস্যা সে কথা বড় নয়।
মনের আকাশে শুধুই পূর্নিমা শরীরে পল্লবিত বাতাস বয়।
ঘুমের ছায়া পড়েছে মম চোখে তবু ঘুম নাহি ব্যাকুল দুটি আঁখি।
ঘুমাও ঘুমাও ঘুমাও সখা ঘুমাও তুমি আমি জেগে জেগে থাকি।

আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ

গীতিকবিতা/আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
৯/৯/২০২১

আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ কাঁদে কেকা ঔই দুরে
শুধু বরসায় নয়, আমি যখনই কাঁদি তব বিরহে মম অন্তরে।
যতটুকু আবেগ ছিল তোমার ততটুকুই না হয় দিতে মোরে।
আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ কাঁদে কেকা ঔই দুরে

আমার আবেগ বেশী,তোমাকে অনেক অনেক জ্বালাই
আমার জ্বালায় পল্লবিত তুমি, নিজেকে নাকি ফেল হারাই
যতটুকুই আবেগ ছিল তোমার ততটুকুই না হয় দিতে মোরে।
আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ কাঁদে কেকা ঔই দুরে

আর তো কাউকে পাইনি আজো দিতে আমার সকল জঞ্জাল।
আধো রাতে এলেই যখন কেন চলে গেলে না হতেই সকাল।
সকাল দুপুর সারাটাদিন থাকতে যদি জীবনটা যেতো আহলাদে ভরে?
যতটুকুই আবেগ ছিল তোমার ততটুকুই না হয় দিতে মোরে।
আমার বিরহ ব্যাথায় কাঁদে আকাশ কাঁদে কেকা ঔই দুরে।।

নদীর জীবন থেকে নদী যায় সরে!

অরূপ রাহীর কয়েকটা গানের কথাকে ভীষণ সত্য মনে হয়। দেখো নদীর কলতানে/ কিসের সন্ধানে/ নদীর জীবন থেকে নদী যায় সরে। আমি গানের ভেতরে নিজের কথা ঢুকিয়ে বানাই, মানুষের জীবন থেকে মানুষ যায় সরে। আমাদের জীবন তো এমনি, ক্রমশ সরে যাচ্ছি। আর এই সরে যাওয়ার নাম দিয়েছি, পজেটিভিটি। যতভাবে ধ্বংস হোক হবো, কিন্তু আমাকে থাকতে হবে পজেটিভ। ওতো ত্যাল আমার নাই। এত নবযৌবনের অগ্রদূতরা কি হয়েছে তা আমার দেখা আছে। নিজেকে আমি মৈনাক ভৌমিকের একটা সিরিজে উজান চ্যাটার্জির বলা খিস্তি, বোকাচোদার বাটখারা ছাড়া আর কিছু ভাবি না। কিন্তু এ শহরের আচারনিষ্ঠ ভদ্রলোক ভদ্রমহিলারা নিজেদের কত কিছু ভাবে। তারাও তো একেকটা বোকাচোদার বাটখারার বাইরে কিছু না তাই শুধু ভাবে না।

ও স্বজনী ও স্বজনী

গীতিকবিতা//তুমি কেন অভিমানিনী
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
৩০/১২/২০২
মডিফাই /৮/৯/২০২১

ও স্বজনী ও স্বজনী,তুমি কেন অভিমানিনী-২
অভিমানের করো অবসান এসো গাও গান
এখনি হবে অবসান যামিনী।
ও স্বজনী ও স্বজনী
তুমি কেন অভিমানিনী

এহেন বেলায় বালুকা বেলায়
শ্যামসুন্দর খেলায় আপনাকে রেখেছ হেলায়
নিপবনে দেখ আসি বিহগ বাজায় বাঁশি
পুস্প কতশত আপনা আপনা মত
বাটিছে সুঘ্রাণ কাড়িতে নয়ান,
দাঁড়িয়ে আাছে,দাঁড়িয়ে আছে কামিনী
ও স্বজনী ও স্বজনী
তুমি কেন অভিমানিনী
ও স্বজনী ও স্বজনী
তুমি কেন অভিমানিনী

হৃদয় যে হিমালয় নয়তো মহাসাগড়
কতশত বন, ভরিয়া আপনা বক্ষ যখন
হিমালয় দাঁড়িয়ে আছে
সাগড়েও তখন নদী নদীতে বহমান
নিতেছে আপনা আপনা আপনা কাছে।
তোমারই এ হৃদয় সেতো হিমালয়
সেতো সাগর নয়ত মিছে অভিমানিনী
তুমি কেন অভিমানিনী।
ও স্বজনী ও স্বজনী
তুমি কেন অভিমানিনী
ও স্বজনী ও স্বজনী
তুমি কেন অভিমানিনী

তুমি এ কেমন হাল করেছ আমারে

গীতিকবিতা/ তুমি এ কেমন হাল
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
০৩/০৯/২০২১

তুমি এ কেমন হাল করেছ আমারে
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি কুয়ারো ভিতরে।

এই কুয়োর মাঝে বসত করে
লোভ নামের এক সাপ
যতই যেতে চাই গো দুরে
ততই গিলে খায় করে অভিসম্পাত।
হিংসা অহংকার দিলটারে।
হিংসা অহংকার দিলটারে মোর খাচ্ছে কুড়ে কুড়ে
তুমি এ কেমন হাল করেছ আমারে।
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি কুয়ারো ভিতরে।

আর করবো না পাপ ভালো হব
নিত্য শপথ করি
ক্ষনিকে আবার মন ঘুরে যায়
আবার পাপেই মরি
মরা বাঁচার দোলে চালে
মরা বাঁচার দোলে চালে
নৌকা আমার কখন যে এলো তীরে।
তুমি এ কেমন হাল করেছ আমারে
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি
নড়ি চড়ি ঘুরিফিরি কুয়ারো ভিতরে।

আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি

গীতিকবিতা/ আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
৩০/০৮/২০২১

আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি কিসে মানুষ কিসে অমানুষ বুঝতে নারে আমার মনে
মানুুষে মানুষে কেন এত ভেদাভেদ কেন এত ঘৃনা মানুষ মানুষের সনে।
আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি কিসে মানুষ কিসে অমানুষ বুঝতে নারে আমার মনে

এক সূর্যের তাপে সবাই বাঁচে সবার আঁধার ঘুচায় একটাই চাঁদে,চাদের আলো
হিন্দু মুসলিম যত ধর্মের কারনে কেউ কাউকে বাসে না ভালো
আবার আছে কোটি নাস্তিক যাদের সম্পর্ক নাই কোন ধর্মের সনে
আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি কিসে মানুষ কিসে অমানুষ বুঝতে নারে আমার মনে

কারো দেখ সাদা চামড়া কারো আবার কুচকুচে কালো
সাদা কালোর বিবাদ লেগে থাকে হয়না কভু কারো ভালো।
আবার পেশায় পেশায় উঁচু নীচু ছুতে নারে পেশার কারনে
আমার কিসে শক্তি কিসে ভক্তি কিসে মানুষ কিসে অমানুষ বুঝতে নারে আমার মনে

আল্লাহ আমি তোমার বান্দা

গীতিকবিতা/ আল্লাহ আমি তোমার বান্দা
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
২৮/০৮/২০২১

ওগো... আল্লাহ...
আল্লাহ আমি তোমার বান্দা শেষ নবীর উম্মত আমি গুনাহগার
আমার সিনাও চাক করে ঘুচাও আমার মনের অন্ধকার।

চর্ম চক্ষে তোমায় দেখতে নারি, দিলের আঁখি খুলি
সদা কসরত করি দেখতে তোমায় খোদা খেই হারিয়ে ফেলি
কি করে দেখবো তোমায় বলো দিল যে আমার ময়লারও ভাগাড়।
আমার সিনাও চাক করে ঘুচাও মনের অন্ধকার।

নবীর সিনা চাক করেছে বার কয়েক করিতে নিস্পাপ
হিংসা লোভ অহংকারও না ছিল তাঁহার, কাউকে করেননি অভিসম্পাত
তাঁকে আপনি করেছেন সমুন্নত,কেউ নয় তো উনার মত
তার উছিলায়,দয়াল নবীর দয়ায় পুলসিরাত হবো আমি পার।।
আমার সিনাও চাক করে ঘুচাও মনের অন্ধকার।

দুঃখ থাকবে সুখও থাকবে,জীবনে উত্থান পতন আসবে
এটা তো আপনারই কথা, তাইতো আমি ঘামাই না মাথা
কাজ থেকে যখন হইবো বিরত, মাঙবো আমার চাহিদা যত

যতই যেতে চাই গো দুরে

গীতিকবিতা/ যতই যেতে চাই দুরে
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
২৭/৮/২০২১

যতই যেতে চাই গো দুরে,ততই বাঁধো নতুন করে নতুন নতুন ডোরে
ছেড়েও দেও না কাছেও নেও না যাচ্ছি আমি মরমে মরে
যতই যেতে চাই গো দুরে,ততই বাঁধো নতুন করে নতুন নতুন ডোরে

এই প্রেম পীরিতি কি যে রহস্যময়, মানে না বয়স থাকেনা ডর থাকেনা ভয়।
মাটির সাথে আকাশের ভাব বৃষ্টি হয়ে হয় আবির্ভাব
তাদের মিলনে মা মাটি কেমনে সবুজে সবুজে যায় গো ভরে।
যতই যেতে চাই গো দুরে,ততই বাঁধো নতুন করে নতুন নতুন ডোরে

নদীর সাথে সাগরের পীরিত, সদাই নদী সাগড় পানে বয়
কেউ কি পারে রুখতে নদীকে সাগরে মিলন হবেই হয়।
চাইলে রবে মিলন হবেই মোদের কেউ কি কভূ রুধিত পারে।
যতই যেতে চাই গো দুরে,ততই বাঁধো নতুন করে নতুন নতুন ডোরে

তুমি ছাড়া এ জীবন মরুভূমি যেন

গীতিকবিতা/ তুমি ছাড়া এ জীবন মরুভূমি যেন
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
কোরানটাইন বিল্ডিং
২৬/০৮/২০২১

তুমি ছাড়া এ জীবন মরুভূমি যেন শুধু ধুধু বালুচর
তোমাতেই শুধু মন চায় হারাতে , মন চায় বাঁধি ভালোবাসার ঘর।
তুমি ছাড়া এ জীবন মরুভূমি যেন শুধু ধুধু বালুচর

সেদিন যখন গেলে চলে, দিয়ে গেলে একমুঠো স্মৃতি
বলে গেলে আসবে ফিরে, বেশীদিন থাকবে না দুরে
আজ কতদিন হয়ে গেল, নদীতে কত জল বয়ে গেল।
নিলে না খবর।
তোমাতেই শুধু মন চায় হারাতে, মন চায় বাঁধি ভালোবাসার ঘর।

তুমি বল আমি কেন এত আবেগময় এত পল্লবিত যা পুড়ায় দুজনকে
আমি তো দেখিনা আবেগ,এ যে ভালোবাসা রং যা মিটিবে না ক্ষনিকে।
ভালোবাসায় রং না এলে, মনের রংয়ে রং না রাঙালে হয় কি মনোহর
তোমাতেই শুধু মন চায় হারাতে, মন চায় বাঁধি ভালোবাসার ঘর।

আমি যারে আমি ভালোবাসি

গীতিকবিতা/ আমি যারে আমি ভালোবাসি
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ আর্মি ক্যাম্প
কোরানটাইন বিল্ডিং
২৪/০৮/২০২১

আমি যারে আমি ভালোবাসি আমার সকলি তাহার, সকলি তাহারি দান
অর্থ সম্পদ মান সন্মান বিত্ত বৈভব আমার শিক্ষা আমার জ্ঞান।
আমি যারে আমি ভালোবাসি আমার সকলি তাহার সকলি তাহারি দান।

কে সৃজিছে এই দেহটারে, কেই বা আছে মম অন্তরে
চর্ম চক্ষে দেখিতে নারে, কে কথা কয় মম অন্তরে।
আমার আমার করেছি সদা আমার আমিতে হয়েছি হয়রান।
আমি যারে আমি ভালোবাসি আমার সকলি তাহার সকলি তাহারি দান।

যেদিন বুজেছি আমি নই আমারে খুজেছি তাহারে অন্তরে বাহিরে
আকাশে পর আকাশে খুজেছি, পাতালের পর পাতালে দেখেছি
খুজেছি যত আপনা আপনা মত বুজেছি তত এখানে মম অন্তরে নহে নহে নহে তার স্থান।
আমি যারে আমি ভালোবাসি আমার সকলি তাহার সকলি তাহারি দান।

সে হয়েছিল মম সহযাত্রী, থেকেছে সাথে কটা দিন কটা রাত্রি।

তরণী না হয় তরুণী হলো

গীতিকবিতা/ তরণী না হয় তরুনী হলো,
আহসান হাবিব
হাসনাবাদ কোরানটাইন বিল্ডিং
২১/০৮/২০২১

তরণী না হয় তরুনী হলো, নৌকার জায়গায় নায়িকা হলো হতে দেনা হতে দে।
যেখানেই যাই, যাহা কিছুই করি, মন যে পড়ে থাকে তরুণীতেই রে?
তরণী না হয় তরুনী হলো, নৌকার জায়গায় নায়িকা হলো হতে দেনা হতে দে।

তোদের বোঝাবে কে, মন যে আমার হাওয়ায় হাওয়ায় ঘুরে
ওই যে নীলাকাশ তার পরে আরো আকাশ সাজানো স্তরে স্তরে
সুশোভিত এমনি, কোথাও ত্রুটি চোখে পড়েনি
পড়িবে কেমনি বানিয়েছেন যিনি মহানের মহান যে সে।
তরণী না হয় তরুনী হলো, নৌকার জায়গায় নায়িকা হলো হতে দেনা হতে দে।

চোখে যখন দেখি তরুণী, বিস্ময়ে স্তম্ভিত হতবাক হই তখনি
কত অপরূপ রূপে সাজিয়েছ তুমি,যতই দেখি বেড়ে যায় তৃষা, সে তৃষা মিটিবে সে কিসে।
তরণী না হয় তরুনী হলো, নৌকার জায়গায় নায়িকা হলো হতে দেনা হতে দে।

তরণী পারাবারের খেয়া, তরুণী বয় জীবন নদীর খেয়া

তুমি হাইয়্যুল তুমি কাইয়্যুম

আহসান হাবিব
শীতল ছায়া সোসাইটি
মানিকদী, ঢাকা
গীতি কবিতা/ তুমি হাইয়্যুল তুমি কাইয়্যম।

আল্লাহ তুমি হাইয়্যুল তুমি কাইয়্যুম তুমি রহিম তুমি রহমান
কার বা কাছে আশ্রয় চাইবো কার বা শাণে গাইবো স্তুতি গান।
আল্লাহ তুমি হাইয়্যুল তুমি কাইয়্যুম তুমি রহিম তুমি রহমান

ঘুম তো তোমার হয়না কভু তন্দ্রাও নাহি ধরে
কেও কি আছে তোমার সমান আসমান জমিন পরে
কে করিবে সুপারিশ তোমার সনে তোমার অনুমতি যদি নাহি পান।
তুমি হাইয়্যুল তুমি কাইয়্যুম তুমি রহিম তুমি রহমান

সামনে পিছে উপর নীচে, ভূত ভবিষ্যৎ জানা আছে
জমীন থেকে আসমান অব্দি তোমার আসন পাতা আছে
কোন জ্ঞান হাসিল হয় না কভূ, না হইলে তোমার পারমিশান।
তুমি হাইয়্যুল কাইয়্যুম তুমি রহিম তুমি রহমান

ওগো খোদা রহমানুর রহীম

আহসান হাবিব
শীতল ছায়া সোসাইটি, মানিকদী, ঢাকা
১৯/০৮/২০২১
গীতিকবিতা /ওগো খোদা রহমানুর

ওগো খোদা রহমানুর রহীম ওগো অসীম দয়ালু আমার দয়াময়
হৃদয়ে সদা বিরাজে তোমার নাম আমার তবে কিসের ডর আমার কিসের ভয়।
ওগো খোদা রহমানুর রহীম ওগো অসীম দয়ালু আমার দয়াময়।।

নামাজ পড়েছি অসময়ে রুকু সেজদা হয়নিও জেনে
পড়েছি নামাজ ছাড়িনি নামাজ করবে ক্ষমা করবে কবুল তুমি যে সদাশয়।
ওগো খোদা রহমানুর রহীম ওগো অসীম দয়ালু আমার দয়াময়।।

রমজান মাসে রোজা রাখি, সারাদিন না খেয়ে থাকি
বলতে আমি পারবো না হায় চোখের রোজা মনের রোজা হয়েছে নাকি
তবু আমি রোজা রাখি নামাজ পড়ি করবে ক্ষমা
করবে কবুল তুমি যে সদাশয়।
ওগো খোদা রহমানুর রহীম ওগো অসীম দয়ালু আমার দয়াময়।।

ব্যানার

আমরা বন্ধু ব্লগের জন্য যে কেউ ব্যানার করতে পারেন। ব্যানার প্রদর্শনের ব্যাপারে নির্বাচকমণ্ডলীর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আকার ১০০০ x ১৫০ পিক্সেল। ইমেইল করে দিন zogazog এট আমরাবন্ধু ডট com এবং সেই সাথে ফ্লিকার থ্রেডে আপলোড করুন ফ্লিকার থ্রেড

● আজকের ব্যানার শিল্পী : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

ব্যানারালোচনা